বাগেরহাটে হামলা ও হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৬, ২০২১

বাগেরহাটে হামলা ও হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন

আবু-হানিফ, বাগেরহাট অফিসঃ বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে বহরবুনিয়া ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হামলা ও বাড়িঘর ভাংচুরের ঘটনায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (০৬ এপ্রিল) দুপুরে ইউনিয়নের কলেজ বাজারে জাকির ফরাজীর শাস্তির দাবিতে এলাকাবাসী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে। হামলার ঘটনায় আহত শাহ আলী হাওলাদারের স্ত্রী মারুফা বেগম বাদি হয়ে জাকির ফরাজীকে প্রধান আসামি করে ১২ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, ২৯ মার্চ রাত ৮টার দিকে বহরবুনিয়া গ্রামের নৌকা প্রতিকের সমর্থনকারী হেমায়েত হাওলাদার নির্বাচনী কার্যক্রম শেষ করে বাড়ি ফেরার পথিমধ্যে তালতলা এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একই এলাকার জাকির ফরাজীর নেতৃত্বে ১০/১২ জনের স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থনের একটি সংঘবদ্ধ দল।

ইউপি সদস্য হেমায়েত উদ্দিনের ওপর হামলা করে। গুরুত্বর আহতরা হলেন শাহ আলী হাওলাদার (৫০), হেমায়েত হাওলাদার(৩৫) ও চানমিয়া জোমাদ্দার (৪৪)।

এ সময় তার ডাকচিৎকারে তার বড় ভাই শাহ আলী স্থানীয়দের নিয়ে উদ্ধার করতে আসলে তাকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুরুত্বর জখম করে। থানা পুলিশ ওই রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেয়।

ঐ ঘটনার জের ধরে জাকির ফরাজীর স্ত্রী মোসাঃ তানজিলা বেগম বাদি হয়ে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইউপি সদস্য মো. মাসুদ বিল্লাহ মাসুদকে প্রধান আসামি করে ১১ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি হয়রানী মূলক মিথ্যা মামলা দায়ের করেন।

সেই থেকেই জাকির ফরাজী ও তার লোকজন বিভিন্ন ভাবে হুমকী ধামকি দিয়ে আসছেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান হাওলাদার, প্রাক্তণ প্রধান শিক্ষক গৌরাঙ্গ চন্দ্র মন্ডল, হেমায়েত উদ্দিন হাওলাদার, শাহ আলী হাওলাদার, রাসেল হাওলাদার সহ একাধিকরা বলেন,

জাকির ফরাজীর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী এলাকার সাধারন মানুষের শত শত বিঘা জমি দখল, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে।

এলাকায় যদি কেউ তার বিরুদ্ধে কথা বলে তার উপর নেমে আসে হামলা ও মিথ্যা মামলা। এখন এই জাকির ফরাজী তার স্ত্রীকে দিয়ে মিথ্য মালা দিয়েছে। বক্তারা জাকির ফরাজীর দায়ের করা ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহার ও শাস্তির দাবি জানান।

এ ব্যাপারে জাকির ফরাজী বলেন, আমরা আওয়ামী লীগ করি দলের বাইরে নই, ঘটনাটি সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক প্রশাসনের প্রতি দাবী জানান।

এ সর্ম্পকে ইউপি চেয়ারম্যান নৌকার মনোনীত প্রাথী রিপন তালুকদার বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থীর লোকজন আমার ৩ কর্মীকে পিটিয়ে আহত করেছে।

তারা এলাকায় নৈরাজ্য সৃষ্টি করে সাধারণ ভোটারদের মাঝে আতংক সৃষ্টি করছে। জাকির ফরাজীর নেতৃত্বে হামলা হয়। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশিল, পুলিশ প্রসাসন তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন।

ফেসবুকে আমরা

পুরাতন সব সংবাদ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

এই মাত্র পাওয়া