রাবিতে ৩৩ শিক্ষার্থী ও ৩ শিক্ষক পেলেন ‘ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড

প্রকাশিত: ৬:১৬ অপরাহ্ণ , নভেম্বর ৯, ২০২০

রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) প্রকৌশল অনুষদের কৃতী শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ‘ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড-২০২০’ প্রদান করা হয়েছে।

আজ সোমবার বেলা ১১টায় নবনির্মিত প্রকৌশল অনুষদ গ্যালারিতে এ পুরষ্কার তুলে দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে অনুষদভুক্ত পাঁচটি বিভাগের ৩ জন কৃতী শিক্ষক ও ৩৩ জন কৃতী শিক্ষার্থীকে ‘ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড’-এর সনদ ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করেন বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান।

প্রকৌশল অনুষদভূক্ত বিষয়ের শিক্ষকদের ২০১৯ সালে প্রকাশিত গবেষণা প্রবন্ধের ইম্প্যাক্ট ফ্যাক্টরের ভিত্তিতে এবং স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের প্রতি বর্ষের পরীক্ষায় ৩.৭৫ বা তার বেশি জিপিএ অর্জনের স্বীকৃতিতে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়।

পুরস্কারপ্রাপ্ত শিক্ষকরা হচ্ছেন, ফলিত রসায়ন ও রসায়ন প্রকৌশল বিভাগের প্রফেসর ইব্রাহীম হোসেন মন্ডল; ম্যাটেরিয়ালস্ সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ড. মির্জা হুমায়ুন কবীর রুবেল এবং ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারং বিভাগের ড. জাকের হোসেন।

পুরস্কারপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হচ্ছেন, ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের পারভেজ রানা; ফলিত রসায়ন ও রসায়ন প্রকৌশল বিভাগের মোছা. মাহমুদা আকতার ও টনি চৌধুরী; কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মো. নাদিম মাহমুদ, মো. আরিফুজ্জামান, অরূপ সরকার, মো. নাহিদ আহসান, রকিব শেখ ও মোছা. সাহালা রহমান; ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মো. আমিরুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী, রোকসানা ইয়াসমিন, মো. বিপুল ইসলাম, রশিদ মিঞা, তাহমিনা তাসফিয়া প্রমী, মোছা. সাবিকুন্নাহার, মো. জাভিদ হাসান, মো. মেহেদী হাসান অপু, সুষ্মিতা পাল, শামিম মাহমুদ, শরিফুল ইসলাম, বকুল চন্দ্র রায় ও মো. আব্দুর রহমান আল মাহাদী; ম্যাটেরিয়ালস্ সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সোহিলী ফেরদৌস, বন্যা রানী ও মাহফুজা রহমান প্রমী; ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আমান উল্লাহ আমান, মো. ইসলাহুর রহমান ইবন, মো. আরিফুল রহমান, শেখ হাসিব চেরাগী, রুবায়া খাতুন, শাকিল আহমেদ ও সুমন আহমেদ।

প্রকৌশল অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর মো. একরামুল হামিদের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য প্রফেসর এম আব্দুস সোবহান এবং বিশেষ অতিথি উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা, উপ-উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী মো. জাকারিয়া উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন অনুষদের প্রাক্তন অধিকর্তা প্রফেসর আবু বকর মো. ইসমাইল। এছাড়া ম্যাটেরিয়ালস্ সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি প্রফেসর জি এম শফিউর রহমান বক্তৃতা দেন। সেখানে অ্যাওয়ার্ড অর্জনকারী শিক্ষক প্রফেসর মো. ইব্রাহীম হোসেন মন্ডল তাঁর অনুভূতি ব্যক্ত করেন। অ্যাওয়ার্ড অর্জনকারী শিক্ষার্থী সোহিলী ফেরদৌস জুম অ্যাপস-এর মাধ্যমে সংযুক্ত হয়ে তার অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক জাকিয়া জিনাত চৌধুরী অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে প্রক্টর প্রফেসর মো. লুৎফর রহমান, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক ড. মো. আজিজুর রহমান, বিভিন্ন অনুষদের অধিকর্তা, প্রকৌশল অনুষদভুক্ত বিভাগসমূহের সভাপতি ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। করোনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস-পরীক্ষা ও হলসমূহ বন্ধ থাকায় অ্যাওয়ার্ড অর্জনকারী শিক্ষার্থীরা জুম অ্যাপস-এর মাধ্যমে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, বিজ্ঞান, প্রকৌশল, ভূবিজ্ঞান ও জীববিজ্ঞান বিষয়ে গবেষণার পাশাপাশি কলা, বাণিজ্য, সামাজিক বিজ্ঞান বিষয়েও গবেষণা বাড়াতে হবে। তিনি আরো বলেন, আমাদের গবেষণা বরাদ্দের সীমাবদ্ধতা আছে কিন্তু ভালো গবেষণা করতে বরাদ্দের পাশাপাশি গবেষণায় আগ্রহ থাকতে হবে। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে গবেষকদের আরো নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে কাজ করার আহ্বান জানান। কোন বিভাগ বিশেষায়িত ল্যাব তৈরি করতে চাইলে তার প্রস্তাব প্রশাসনের কাছে পাঠানো হলে তা বিবেচনা করা হবে বলে তিনি জানান।

প্রঙ্গত, অনুষ্ঠানের আগে উপাচার্য নবনির্মিত প্রকৌশল অনুষদ গ্যালারী উদ্বোধন করেন। এই গ্যালারীতে প্রয়োজনীয় সকল আধুনিক সুবিধা আছে।

প্রিয় পাঠক, আপনিও লিখতে পারেন আমাদের পোর্টালে। কোন ঘটনা, পারিপাশ্বিক অবস্থা, জনস্বার্থ, সমস্যা ও সম্ভাবনা, বিষয়-বৈচিত্র বা কারো সাফল্যের গল্প, কবিতা,উপন্যাস, ছবি, আঁকাআঁকি, মতামত, উপ-সম্পাদকীয়, দর্শনীয় স্থান, প্রিয় ব্যক্তিত্বকে নিয়ে ফিচার, হাসির, মজার কিংবা মন খারাপ করা যেকোনো অভিজ্ঞতা লিখে পাঠান সর্বোচ্চ ৩০০ শব্দের মধ্যে। পাঠাতে পারেন ছবিও। মনে রাখবেন দৈনিক আলোকিত ভোর.কম পোর্টালটি সকল শ্রেণী পেশার মানুষের জন‌্য উন্মুক্ত। তাছাড়া, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার স্বাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবর অথবা লেখা মান সম্পন্ন এবং বস্তুনিষ্ঠ হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে। লেখা পাঠানোর ইমেইল- dailyalokitovor@gmail.com