জয় দিয়ে সিরিজ শেষ করতে চায় বাংলাদেশ

প্রকাশিত: ৫:৫৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২১

জয় দিয়ে সিরিজ শেষ করতে চায় বাংলাদেশ

 

অনলাইন ডেস্ক:

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয় দিয়ে শেষ করতে চায় স্বাগতিক বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের আগে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখাই মূল লক্ষ্য টাইগারদের। এমন লক্ষ্য নিয়ে আগামীকাল নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ টি-টোয়েন্টি খেলতে নামছে বাংলাদেশ।

আগামীকাল শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

চতুর্থ ম্যাচ ৬ উইকেটে জিতে ইতোমধ্যে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। সিরিজ জয়ের পাশাপাশি ৩-১ ব্যবধানে এগিয়েও আছে টাইগাররা। সিরিজের প্রথম ম্যাচ ৭ উইকেটে ও দ্বিতীয়টি ৪ রানে জিতেছিল বাংলাদেশ। তৃতীয় ম্যাচ ৫২ রানে জিতে সিরিজে নিজেদের আশা বাঁচিয়ে রেখেছিলো নিউজিল্যান্ড। কিন্তু চতুর্থ ম্যাচ হেরে, সিরিজ হারে সফরকারীরা। চতুর্থ ম্যাচ জিততে ঘাম ঝরাতে হয়েছে বাংলাদেশকে। ৯৪ রানের টার্গেট স্পর্শ করে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও সিরিজ জয় নিশ্চিত করে বাংলাদেশ।

বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ার ও নিউজিল্যান্ডের মত বড় দু’দলের বিপক্ষে প্রথমবারের মত দ্বিপাক্ষীক টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয় টাইগারদের আত্মবিশ্বাসী রাখবে।

বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশ দলের আর কোনো সিরিজ নেই। তবে বিশ্বকাপের এক সপ্তাহ আগে ওমানে কন্ডিশনিং ক্যাম্প করবে তারা। তাই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের পঞ্চম ম্যাচটিই হবে বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। বিশ্বকাপের আগে দু’টি অনুশীলন ম্যাচ রয়েছে টাইগারদের।

অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ জানান, সিরিজ জয় নিশ্চিতের পরও জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে ব্যবধান ৪-১ করতে চান। তিনি বলেন, ‘এই সিরিজ জয়ের কৃতিত্ব টিম ম্যানেজমেন্ট ও ছেলেদের। আরও একটি সুযোগ আছে এবং আশা করছি দলগতভাবে ম্যাচটি জিততে পারব।’

বাংলাদেশের কাছে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারলো নিউজিল্যান্ড। এই হারে লজ্জার কিছু নেই কিউইদের। কারণ স্লো ও কঠিন উইকেটে বাংলাদেশের সাথে লড়াই করেছে নিউজিল্যান্ড। তাছাড়া সফরে নিউজিল্যান্ড মূল দলের কোন খেলোয়াড়ও ছিল না, যারা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবে। তাই সিরিজটি এই স্কোয়াডে থাকা তরুণ এবং অনভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের জন্য শেখার মঞ্চ ছিল। কিন্তু তাদের অধিনায়ক টম লাথাম জানান, আগামীকাল পঞ্চম এবং শেষ ম্যাচ জিতে ভালোভাবে সিরিজ শেষ করতে চান।

চতুর্থ ম্যাচ শেষে লাথাম বলেন, ‘শেষ ওভারে খেলাটি নিতে পেরে আমি সন্তুষ্ট।আমরা দ্রুত উইকেট হারিয়েছি এবং লড়াই করাটা কঠিন ছিল। কিন্তু যেভাবে আমরা এই ভিন্ন ধর্মী উইকেটে মানিয়ে নিতে চেষ্টা করেছি তা সত্যিই দারুণ । এটি একটি তারুণ্য নির্ভর দল, যারা খুব বেশি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট এবং আমরা অনেকেই এখানে খেলিনি। আশা করি শেষ ম্যাচে প্রায় নিখুত পারফরমেন্স দেখাতে পারবো।’

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত ভার্সনের ক্রিকেটে ১৪ বার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড। কিউইদের জয় ১১টি। বাংলাদেশের জয় ৩টিতে। বাংলাদেশের সবগুলো জয় চলমান সিরিজ থেকে এসেছে।

২০১৮ সালে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে ফিল্ডিং করার সময় বাঁ হাতের কনিষ্ঠায় চোট পান সাকিব আল হাসান। সেই ইনজুরি নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে খেলার পর এশিয়া কাপে এক ম্যাচ খেলার পর আঙুলটির দ্বিতীয় জয়েন্টের হাড় ছুটে যায় আর লিগামেন্টও ইনজুরি হয়। দেশে ফেরার পর জরুরি ভিত্তিতে তার আঙুলে অপারেশন করানো হয়। এরপর সাকিব অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে আবারো অপারেশন করান।

বাংলাদেশ টিম ম্যানেজম্যান্ট সূত্রের খবর আঙুলের পুরোনো ব্যথা ফিরে এসেছে সাকিবের। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ব্যাটে-বলে সেভাবে খুঁজে পাওয়া যায়নি সাকিব আল হাসানকে। মিরপুরের স্লো উইকেটে যখন অন্য স্পিনার নাসুম আহমেদ ছিলেন সফল, তখন শেষ দুই ম্যাচে উইকেট শূণ্য এই তারকা। অবশ্য নিজেও ঠিকঠাক ফিট ছিলেন না। আঙুলের ব্যথা অবশ্য তেমন মারাত্মক নয়। তারপরও বিশ্বকাপের আগে ঝুঁকি নিতে চান না তিনি। এ কারণেই আগামীকাল শুক্রবার কিউইদের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে খেলবেন না সাকিব। বিশ্রামে থাকবেন এই অলরাউন্ডার।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে ৪ ম্যাচে ৪ উইকেট পাওয়া মি. অলরাউন্ডারের এই ফরম্যাটে এখন পর্যন্ত উইকেট সংখ্যা ১০৬টি। আর মাত্র ২টি উইকেট শিকার করলেই শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি পেসার লাসিথ মালিঙ্গাকে ছাপিয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হবেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। একইসঙ্গে ২ উইকেট পেলে আন্তজার্তিক ক্রিকেটের তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ৬০০ উইকেট শিকারের কীর্তিও গড়বেন টাইগার অলরাউন্ডার। যার মধ্য দিয়ে পৃথিবীর একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে ১২ হাজার রান এবং ৬০০ উইকেট নেয়ার অনন্য ইতিহাস গড়বেন ‘সুপার’সাকিব। এখন হয়তো বিশ্বকাপের ময়দানেই রেকর্ড গড়বেন বাংলাদেশের এই তারকা ক্রিকেটার। তবে তার আগে আঙুলের ব্যথাটা দ্রুত সেরে গেলেই হয়!

সাকিব ছাড়াও শেষ ম্যাচে বিশ্রাম দেয়া হবে সাইফুদ্দিন, মুস্তাফিজুর রহমান এবং নাসুম আহমেদকে। সাকিবের পরিবর্তে তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামতে পারেন সৌম্য সরকার। শামীম পাটোয়ারীর সঙ্গে তাসকিন আহমেদ ও শরিফুল ইসলামকে একাদশে দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা জোরালো।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), নাঈম শেখ, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান (উইকেটরক্ষক), মেহেদী হাসান, শামীম হোসেন পাটোয়ারী, শরিফুল ইসলাম,তাসকিন আহমেদ।

নিউজিল্যান্ডের সম্ভাব্য একাদশ : ফিন অ্যালেন, উইল ইয়াং, রাচিন রবীন্দ্র, টম লাথাম (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক),কলিন ডি গ্রান্ডহোম, হেনরি নিকোলস, টম ব্লুন্ডেল, কোলে ম্যাককঞ্চিয়ে, আজাজ প্যাটেল,হামিশ বেনেট, ব্লেইর টিকনার।

ফেসবুকে আমরা

পুরাতন সব সংবাদ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
এই মাত্র পাওয়া