রায়গঞ্জ জে.আর টেকনিক্যাল স্কুল এ্যান্ড কলেজের ১২ বছরেও উন্নয়ন নেই 

প্রকাশিত: ৭:০৫ অপরাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের জেলার নাগেশ্বরী উপজেলায়, স্বতন্ত্র কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রায়গঞ্জ জে.আর টেকনিক্যাল স্কুল এ্যান্ড কলেজ।

কলেজটিতে অবকাঠামোগত, প্রযুক্তিগত অসুবিধাসহ নানা সমস্যায় জড়জড়িত উপজেলার রায়গঞ্জ ইউনিয়নে অবস্থিত এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি। দেশের অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগলেও প্রতিষ্ঠা হওয়ার প্রায় ১ যুগ (১২ বছর) হলেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি প্রতিষ্ঠানটিতে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিষ্ঠানটিতে পুরাতন টিনশেড দ্বারা নির্মিত ৫ কক্ষ বিশিষ্ঠ পাঠদান ভবনটি জরাজীর্ণ অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে। প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি অধিদপ্তর কর্তৃক বরাদ্দকৃত ১ লাখ টাকা ও প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ৫৫ শতাংশ নিজ জমিতে স্থাপিত এই কলেজটি প্রতিষ্ঠিত করেন, মোঃ আবু জাফর আলী। শিক্ষা উপকরণ, পাঠাগার, খেলাধুলা সংক্রান্ত নানাবিধ সমস্যায় জড়জড়িত এই প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিষ্ঠানের সহকারি শিক্ষক তাইজুল ইসলাম জানান, প্রতিষ্ঠানটিতে এসএসসি (ভোকেশনাল) ও এইচএসসি (বিএম) এর ৪টি ট্রেডে প্রায় ৪ শতাধিক শিক্ষার্থী লেখা পড়া করছে। এখানে একাডেমিক কোন ভবন না থাকায় শিক্ষার্থীদের পাঠদানে নানা ধরনের জটিলতার সম্মুখীন হতে হয়।

ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মোশাররফ হোসেন বলেন, নানাবিধ সমস্যায় জড়জড়িত এই প্রতিষ্ঠানটি ২০০৯ খ্রিষ্টাব্দে প্রতিষ্ঠা হলেও আজবধি কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। যার ফলে দিন দিন স্বনামধন্য এই প্রতিষ্ঠানটির প্রতি শিক্ষার্থীদের চাহিদা কমে যাচ্ছে।

অধ্যক্ষ জান্নাতুল নাঈম প্লাবনী (ভারপ্রাপ্ত) বলেন, হতদরিদ্র অবহেলিত পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির মাঝে কারিগরি শিক্ষা বিস্তারে অত্র প্রতিষ্ঠানটি এক অনন্য ভূমিকা পালন করলেও এখন পর্যন্ত একাডেমিক ভবন, ডিজিটাল ল্যাব স্থাপনে পিছিয়ে পড়ছে স্বনামধন্য এই প্রতিষ্ঠানটি। এ বিষয়ে একাধিকবার কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হলেও আজও কোন সুফল পাওয়া যায়নি।

তিনি আরও বলেন, আমি প্রতিষ্ঠানটি রক্ষায় শিক্ষাবান্ধব নেত্রী, দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি ও অত্র এলাকার উন্নয়নের সারথী মোঃ আসলাম হোসেন সওদাগর এমপি মহোদয়ের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ বিষয়ে অত্র প্রতিষ্ঠানের সভাপতি মহোদয় বলেন, স্বনামধন্য এই প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার মান উন্নয়নে অবকাঠামোগত, প্রযুক্তগত অসুবিধা নিরসনে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

প্রিয় পাঠক, আপনিও লিখতে পারেন আমাদের পোর্টালে। কোন ঘটনা, পারিপাশ্বিক অবস্থা, জনস্বার্থ, সমস্যা ও সম্ভাবনা, বিষয়-বৈচিত্র বা কারো সাফল্যের গল্প, কবিতা,উপন্যাস, ছবি, আঁকাআঁকি, মতামত, উপ-সম্পাদকীয়, দর্শনীয় স্থান, প্রিয় ব্যক্তিত্বকে নিয়ে ফিচার, হাসির, মজার কিংবা মন খারাপ করা যেকোনো অভিজ্ঞতা লিখে পাঠান সর্বোচ্চ ৩০০ শব্দের মধ্যে। পাঠাতে পারেন ছবিও। মনে রাখবেন দৈনিক আলোকিত ভোর.কম পোর্টালটি সকল শ্রেণী পেশার মানুষের জন‌্য উন্মুক্ত। তাছাড়া, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার স্বাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবর অথবা লেখা মান সম্পন্ন এবং বস্তুনিষ্ঠ হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে। লেখা পাঠানোর ইমেইল- dailyalokitovor@gmail.com