পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

যবিপ্রবিতে প্রথম বর্ষের অরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত।

যবিপ্রবিতে প্রথমবর্ষের অরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত।

লিজা,যবিপ্রবি প্রতিনিধি : নতুন ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের অভিভাবকগণকে আশ্বস্ত করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেছেন, ‘আমি আমার শিক্ষার্থীদের কখনো ভাই-বোন বলি না। তাদেরকে আমার সন্তান বলি। আজ থেকে আপনার সন্তান আমার সন্তান। তাঁদের ভালো-মন্দ দেখার দায়িত্ব আমার।

আজ সোমবার দুপুরে যবিপ্রবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব একাডেমিক ভবনের নবম তলায় নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন এসব কথা বলেন।

এর আগে নবীন শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ এবং তাঁদের মধ্যে ওরিয়েন্টেশন কিট বিতরণ করা হয়। একইসঙ্গে স্ব স্ব অনুষদের ডিনবৃন্দ তাদের বিভাগের শিক্ষকদের সঙ্গে নবীন শিক্ষার্থীদের পরিচয় করিয়ে দেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের অগ্রগতির জন্য আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হলো একটি পরিবার। এখানে আলাদা কোনো গ্রুপিং নেই। আমরা দুটি স্লোগানের উপর এগোচ্ছি: একটি হচ্ছে ‘টুগেদার উই আর ওয়ান’। আরেকটি হচ্ছে ‘আমরা চাকরি চাইবো না, চাকরি দেবো।’ আমরা যদি একতাবদ্ধ থাকি, তাহলে যবিপ্রবি একদিন বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠে পরিণত হবে। মুজিব বর্ষের তাৎপর্য তুলে ধরে অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘তোমরা অনেক ভাগ্যবান যে মুজিব বর্ষে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পেরেছো। যাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে, সেই মানুষের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে হবে। ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে এবং দুই লক্ষ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। সেই শহীদের রক্তের ঋণ তোমাদের শোধ করতে হবে। এ জন্য নিজেকে যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

যবিপ্রবির ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তরের পরিচালক ড. মোঃ মীর মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন যবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মোঃ আব্দুল মজিদ, ডিনস কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোঃ আনিছুর রহমান, ডিন ড. এ এস এম মুজাহিদুল হক, ড. কিশোর মজুমদার, অধ্যাপক ড. মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাস, ড. জাফিরুল ইসলাম, ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মোঃ আহসান হাবীব, গ্রন্থাগারিক মুহা. আমিনুল হক, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর ড. হাসান মোহাম্মদ আল-ইমরান, শেখ হাসিনা ছাত্রী হলের প্রভোস্ট ড. সেলিনা আক্তার, শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের প্রভোস্ট মোঃ মজনুজ্জামান, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তরের সহকারী পরিচালক ড. তানভীর হাসান, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোঃ নজরুল ইসলাম, যৌন নিপীড়ন বিরোধী কমিটির আহ্বায়ক ড. মৌমিতা চৌধুরী, প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. দীপক কুমার মন্ডল, যবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আফিকুর রহমান অয়ন, এ্যাগ্রো প্রডাক্ট প্রসেসিং টেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী নাজমুল হোসাইন, নবীন শিক্ষার্থী দিশা প্রিয়া মিষ্টি, রাসেল উদ্দীন প্রমুখ।

বক্তব্য পর্ব শেষে বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

শাহিন রেজা/এস আর, দৈনিক আলোকিত ভোর।

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
You cannot copy content of this page
Close
Close