ইসলামের ইতিহাস বিভাগ দিয়ে রাবির ফাইনাল পরীক্ষা শুরু, অফিস বন্ধে বিড়ম্বনায় শিক্ষার্থীরা!

প্রকাশিত: ৬:২৬ অপরাহ্ণ, জুন ৮, ২০২১

ইসলামের ইতিহাস বিভাগ দিয়ে রাবির ফাইনাল পরীক্ষা শুরু, অফিস বন্ধে বিড়ম্বনায় শিক্ষার্থীরা!

আবু সাঈদ সজল, রাবি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ইসলামের ইতিহাস বিভাগের পরীক্ষা দিয়েই ২০২০ সালের আটকে থাকা অনার্স ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বিভাগের সভাপতি ও কলা অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. ফজলুল হক এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা আমাদের অনার্স ফাইনাল পরীক্ষা শুরু করেছি। আগামী ৮ জুলাই থেকে অনার্স চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষা দিয়ে আমরা শুরু করবো। এরপর ওই সপ্তাহেই শুরু হবে প্রথম বর্ষের প্রথম সেমিস্টার পরীক্ষা। এরপর ধারাবাহিকভাবে সকল বর্ষের পরীক্ষা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, আমরা ইতোমধ্য রুটিন প্রস্তুত করেছি। এবং আগামী ১০ জুন থেকে ফর্মফিলাপ শুরু। এবং চলবে ১৭ জুন পর্যন্ত।

তাছাড়া, বিশ্ববিদ্যালয় আরবি বিভাগসহ কয়েকটি বিভাগও পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করেছে বলে জানা গেছে।

এদিকে পরীক্ষার ঘোষনায় রাজশাহীতে আসতে শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। কিন্তু বিভাগগুলো পরীক্ষার ঘোষনা দিলে হঠাৎ করেই ৬ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন করোনার বিস্তাররোধে আগামী ১৬ জুন পর্যন্ত সকল অফিস সমূহ বন্ধের ঘোষনা করে। এতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিতে শিক্ষার্থীরা আবাসিক হলে গেলে বিড়ম্বণার শিকার হচ্ছেন বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম খালেদা জিয়া হলের এক শিক্ষার্থী বলেন, আমি আজ আমার হলে গিয়েছিলাম শীটপত্র আর কিছু প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিতে। প্রথমে আমায় হলে প্রবেশে নিষেধ করা হয়। এরপর পরীক্ষার কথা বলায় পরেদিন অফিস টাইমের মধ্যে গিয়ে জিনিসপত্র নিতে অনুমতি দেয়। একদিকে পরীক্ষার ফর্মফিলাপের তারিখ দেয় আরেক দিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অফিস বন্ধ ঘোষনা করায় আমরা চরম বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছি। পরীক্ষার বিষয় বিবেচনা করে আমাদের হলে প্রবেশসহ সীমিত পরিসরে অফিস খোলা রাখতে প্রশাসনকে অনুরোধ জানাচ্ছি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (রুটিন দায়িত্ব) আনন্দ কুমার সাহা বলেন, করোনার বিস্তাররোধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অফিস সমূহ বন্ধের সিদ্ধান্ত নিলেও পরীক্ষার বিষয় বিবেচনা করে আগামী ১৩ জুন (রোববার) থেকে অফিসসমূহ খোলা থাকবে।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৯ সাল ও ২০২০ সালের প্রত্যেক বিভাগের আটকে থাকা পরীক্ষা বিভাগ নিতে পারবে বলে ঘোষনা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ফেসবুকে আমরা

পুরাতন সব সংবাদ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
এই মাত্র পাওয়া