ফিচার

রোভার স্কাউট সিরাজুলের বাজিমাত

রোভার স্কাউটস এর দীক্ষায় দীক্ষিত রোভার মোঃ সিরাজুল ইসলাম, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় রোভার স্কাউট গ্রুপের সহকারী রোভার মেট ও ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ইংরেজি বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী।সব সময় যেন স্কাউটস এর মূলমন্ত্র ও আইনের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে নিজের ও সমাজের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

প্রানঘাতি মহামারী করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ এর কারনে বর্তমানে আদিতমারি উপজেলার সারপুকুর ইউনিয়নের নিজ গ্রাম তালুক হরিদাসে নিজ বাড়িতে অবস্থান করলেও সে থেমে নেই। প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই করোনা সংক্রমণের ঝুকি থাকা সত্বেও কভিড-১৯ করোনাকে আশির্বাদ হিসেবে নিয়ে নতুন কিছু করে চলছে নিজের, পরিবারের ও সমাজের মানুষের জন্য।

স্বাস্থ্য বিধি মেনে নিজ গ্রামে করোনাভাইরাস জনিত সচেতনতা বৃদ্ধি সহ বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজ করে চলছেন।নিজ এলাকার তালুক হরিদাস গ্রামে সাধারণ শিক্ষার্থীদের যৌথ উদ্যোগে অসহায়, দরিদ্র ও দুঃস্থ পরিবারের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেছেন, মসজিদের জন্য ফান্ড সংগ্রহ করেছেন ও এলাকার রাস্তাঘাট সাধ্যমত মেরামত করেছেন।

পাশের বাসার কয়েকজন ছাত্রদের(সপ্তম শ্রেণির ১জন, অষ্টম শ্রেণির ২জন ও একাদশ শ্রেণির ১জন) বিনা টাকায় পড়াচ্ছেন।করোনা ভাইরাসের এ দুর্যোগকালীন সময়ে নিজেদের সবজি বাগান ও বাড়ির আঙিনায় বিভিন্ন ধরনের ফলনশীল সবজি যেমনঃ ঢেঁড়স, বরবটি, শশা, কুমড়া, কলা ইত্যাদি চাষ করে ভালো ফলন পেয়েছেন।

বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচি পালনের অংশ হিসেবে বাড়ির আশেপাশে বিভিন্ন ধরনের ফল গাছের চারা যেমনঃ আম, লিচু, লটকন, কমলা, কামরাঙা, সুপারি, বড়ই ইত্যাদি রোপণ করছেন। এছাড়াও বাড়িতে ছাগল পালন, মুরগির খামার ও কবুতর পোষেন। তাতে পরিবারের বাড়তি আমিষ, ভিটামিন, পুষ্টি ও শাক-সবজির চাহিদা পুরনে কাজ হচ্ছে।

সব সময় কিভাবে সাবলম্ভি হওয়া যায় এবং সাধারণ মানুষের পাশে সহায়তার হাত বাড়ানোর দৃঢ় পদক্ষেপে কাজ করছে।

রোভার স্কাউট মোঃ সিরাজুল ইসলাম সকল ছাত্র-ছাত্রী এবং যুবক- যুবতীদের অবসর সময়ে তাদের নতুন কিছু করার জন্য অনুরোধ করেছেন ফলে পরিবার,সমাজ ও দেশের উন্নয়ন নিজেকে ব্যবহার করতে পারবো বলে মনে করেন।রোভার স্কাউট মোঃ সিরাজুল ইসলাম এর জন্য শুভকামনা।

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
You cannot copy content of this page
Close
Close