মৃত্যুর ৫ বছর পরেও কবরে অক্ষত লাশ

প্রকাশিত: ৭:০৩ অপরাহ্ণ, জুন ১৩, ২০২১

মৃত্যুর ৫ বছর পরেও কবরে অক্ষত লাশ

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলায় প্রায় ৫ বছর আগে দাফন করা এক ব্যক্তির লাশ অক্ষত অবস্থায় দেখা গেছে। ভাঙা কবরের ভিতর লাশ এবং কাফনের কাপড় অক্ষত আছে। ঘটনাটি মির্জাগঞ্জ উপজেলার মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের মধ্য চালিতাবুনিয়া গ্রামের খাঁনজু মার্কেট সংলগ্ন আকন বাড়ি ঘটেছে।

রবিবার (১৩ জুন) ঘটনাস্থলে গিয়ে কথা হয় মৃত আঃ আজিজ আকনের বড় জামাতা মোঃ হাবিবুর রহমানের সাথে। তিনি জানান তার শশুর প্রায় ৫ বছর ২ মাস আগে মারা গিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, তার শশুর আঃ আজিজ আকন ছ্বারছিনা দরবারের ভক্ত ছিলেন এবং একজন মুুুসলমান হিসেবে যতটুকু ইবাদাত করা উচিৎ, তার জীবদ্দশায় তিনি তাতে কোন ফাঁকি দেননি, তার মধ্যে ছিলো আল্লাহভীরুতা। অন্যদিকে ওই এলাকার কিছু বৃদ্ধ লোক জানান, মৃত আঃ আজিজ আকন জীবিত অবস্থায় মিথ্যা কথা বলেননি।

তিনি ২০১৬ সালের মে মাসের ৯ তারিখ তার ৬৩ বছর জীবনাবসান শেষে পরলোক গমন করেন। তার মৃত্যুর তারিখ থেকে কবর ভেঙেছে আজ পর্যন্ত মোট ৫ বছর ১ মাস ৪ দিন হয়েছে এর মধ্যে এখন পর্যন্ত তার লাশ ও কাফনের কাপড় অক্ষত অবস্থায় আছে।

স্থানীয়রা জানান, মির্জাগঞ্জ উপজেলার বর্তমানে আলেম কূলের শিরোমণি ও চত্রা ওলামা মঞ্জিল দ্বীনিয়া কমপ্লেক্সের সম্মানিত সেক্রেটারি আলহাজ্ব মাওলানা মোঃ মোতাহার হোসাইন সুফি সাহেব হুজুরের নির্দেশে অক্ষত লাশটি যে অবস্থায় আছে, সেই অবস্থায় কবরের ভিতরের কোন প্রকার হাত না দিয়ে উপরের মাটি সরিয়ে নতুন করে বাঁশের চালি দিয়ে মাটি দিয়ে রাখতে বললে তার নির্দেশ মত ব্যবস্থা করা হয়েছে।

স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে কবর ভেঙে লাশ অক্ষত অবস্থায় দেখা যাচ্ছে খবরটি মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে শোনার পর অক্ষত লাশটি দেখতে হাজার হাজার মানুষ ভিড় জমায়।
এ ব্যাপারে ছ্বারছিনার পীর সাহেব মরহুম নেছার উদ্দিন (রঃ) সহ অনেকজন আল্লাহর ওলিদের সফর সঙ্গী হিসেবে থাকার সৌভাগ্য হয়েছিল এমন একজন ব্যাক্তি জনৈক গঞ্জে আলী দরবেশ তিনি বলেন, কোরআন হাদিসেও উল্লেখ আছে যে ব্যক্তি ভালো মানুষ এবং যারা ঈমানদার তারা মৃত্যুর পর তাদের একটা পশমও মাটি খাবে না। তারা বেহেশতবাসী হবে – ইনশাআল্লাহ।

ফেসবুকে আমরা

পুরাতন সব সংবাদ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

এই মাত্র পাওয়া