১১’শ ছিন্নমুল পরিবার বাড়ি পাওয়ার স্বপ্নে বিভোর

প্রকাশিত: ২:০৮ অপরাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২১

১১’শ ছিন্নমুল পরিবার বাড়ি পাওয়ার স্বপ্নে বিভোর

 

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামে মুজিব বর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত উপহার আধাপাকা বাড়ি পাওয়ার স্বপ্নে বিভোর এখন ১১শ ছিন্নমুল ভুমিহীন পরিবার।

আগামী ২০ জুন সকালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে সদ্য নির্মিত এসব আধাপাকা ঘর আনুষ্ঠানিক ভাবে হস্তান্তর করবেন । ওই সময় কুড়িগ্রাম প্রান্তে যুক্ত থাকবেন সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক সহ তালিকা ভুক্ত উপকারভোগী ভূমিহীনরা।

শনিবার (১৩ জুন) রংপুর বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আব্দুল ওয়াহাব ভুইয়া আশ্রয়ন প্রকল্প -২ এর আওতায় সদর উপজেলার পাঁছগাছী ইউনিয়নে ধরলা নদীর উপকন্ঠে ৮ দশমিক ২৫ একর সরকারী জমির উপর নির্মিত ৯০ টি আধা পাকা ঘর হস্তান্তর কার্যক্রমের সার্বিক প্রস্তুতি সরেজমিন পরিদর্শনে আসেন। বিভাগীয় কমিশনার উপকারভোগীদের সাথে সরাসরি কথা বলেন এবং তাদের খোঁজখবর নেন।

এ সময় তার সাথে ছিলেন, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনা মোঃ জাকির হোসেন,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সুজাউদ্দৌলা, মেয়র কাজিউল ইসলাম, প্রেসক্লাবের সভাপতি আহসান হাবীব নীলু, সেখানে এক মতবিনিময় সভায় বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল ওয়াহাব ভুইয়া বলেন, জাতির পিতার জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে “প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা দেশে কেউ গৃহহীন থাকবে না”। সেজন্য এসব আধাপাকা ঘর নির্মাণ করে সহায়সম্বল হীন মানুষদের দলিল করে দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, এ ধরনের উদ্যোগ বিশ্বে বিরল। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা গত ২৩ শে জানুয়ারি প্রথম দফায় ৭০ হাজার পরিবারের মাঝে ঘর হস্তান্তর করেছেন। এটি সারাবিশ্বে ভূয়শী প্রশংসা কুড়িয়েছে ।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, আশ্রয়ণ প্রকল্পে বসবাসকারী মানুষের জীবিকায়নের জন্য আয় বর্ধক কাজে সম্পৃক্ত করতে সরকারের মৎস্য, প্রাণিসম্পদ, কৃষি সহ সব বিভাগ যৌথ ভাবে কাজ করবে। যে ব্যক্তি যে কাজ করতে আগ্রহী তাকে সেই বিষয়ে প্রশিক্ষন দিয়ে উপকরণের ব্যবস্থা করা হবে।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিলুফা ইয়াসমিন বলেন, ২য় পর্যায়ে সদর উপজেলায় ৯০ টি পরিবারকে জমি সঙ্গে আধাপাকা ঘর করে দেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। দুই কক্ষ বিশিষ্ট এসব ঘরে রান্নাঘর ও টয়লেট সংযুক্ত রয়েছে। দেয়া হয়েছে টিউবওয়েল ও বিদ্যুত সংযোগ। ধরলানদীর উপকন্ঠে নির্মিত আধুনিক সুবিধা সম্বলিত আশ্রয়ন প্রকল্প- ২ এর তালিকা ভুক্ত উপকারভোগীরা ২০ জুন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে যুক্ত হবেন। এখন শুধুই সেই মাহেন্দ্রক্ষণ এর অপেক্ষা গৃহহীন,ছিন্নমুল এসব মানুষের। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে ঘিরে গোটা এলাকাজুড়ে যেন উৎসবের আমেজ লক্ষ্যকরা গেছে।

জানাগেছে, প্রথম দফায় প্রতিটি আধাপাকা ঘর নির্মানে পরিবহন খরচ সহ ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা বরাদ্দ ছিল, এবারে তা বাড়িয়ে ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা করা হয়েছে। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, আশ্রয়ন প্রকল্প -২ এর আওতায় এবারে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলায় ১০০টি, নাগেশ্বরী উপজেলায় ১০টি, ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় ৫১টি, ফুলবাড়ী উপজেলায় ১০৫টি, রাজারহাট উপজেলায় ৮০টি , উলিপুর উপজেলায় ১৫০টি, চিলমারী উপজেলায় ৩০০টি, রৌমারী উপজেলায় ২০১টি ও চর রাজিবপুর উপজেলায় ৭৩ টি সহ জেলায় মোট ১ হাজার ৭০ টি আধাপাকা বাড়ির দলিল সহ হস্তান্তর করা হবে। আগামী ২০ জুন ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে নির্মিত এসব পাকা ঘর হস্তান্তর করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ ব্যাপারে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন তিনি।

ফেসবুকে আমরা

পুরাতন সব সংবাদ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

এই মাত্র পাওয়া